কালোজিরার উপকারিতা ও অপকারিতা

কালোজিরা আমাদের কাছে খুবই পরিচিত একটি নাম যা আমরা সাধারনত রান্নার কাজে মসলা হিসেবে ব্যবহার করে থাকি। প্রাচীন কাল থেকেই কালোজিরা ব্যবহার হয়ে আসছে। কালোজিরার বৈজ্ঞানিক নাম- Nigella Sativa Linn । তবে এটি শুধু রান্নার কাজে মসলা হিসেবেই ব্যবহার করা হয়ে থাকে না, রান্নার পাশাপাশি এর কিছু ঔষধি গুনাগুন রয়েছে যা চিকিৎসা বিজ্ঞানে খুব গুরুত্বের সাথে ব্যবহার করা হয়।

প্রিয় পাঠক বৃন্দ আজকের এই পোস্টে আমরা জানবো কালোজিরার উপকারিতা ও অপকারিতা এবং এটি খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে।


পেজ সূচিপএঃ কালোজিরার উপকারিতা ও অপকারিতা

কালোজিরার উপকারিতা

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করেঃ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য কালোজিরার বিকল্প নেই। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সতেজ রাখার জন্য কালোজিরার ভূমিকা অপরিসীম। এতে প্রচুর ঔষধি গুনাগুন রয়েছে। তাই প্রতিদিন নিয়ম করে কালোজিরা খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক গুণ বৃদ্ধি পেয়ে যায়।

মাথা ব্যথা দূর করেঃ দৈনন্দিন জীবনের কাজের চাপে বা টেনশনে যখন তখন আমাদের মাথা ব্যাথা হয়। মাথা ব্যাথা দূর করার জন্যে কালোজিরার তেল খুবই উপকারি। মাথা ব্যাথা হলে এটি মাথায় লাগালে দেখবেন মাথার ব্যাথা অদৃশ্য হয়ে গেছে। এই তেল মাথার ব্যাথা নিরাময়ে খুবই কার্যকরি।

অ্যাসিডিটি ও গ্যাসের সমস্যার সমাধানেঃ আপনি যদি দীর্ঘদিন ধরে অ্যাসিডিটি ও গ্যাসের সমস্যায় ভোগেন তাহলে প্রতিদিন কালোজিরা সেবন করুন। এক কাপ দুধের সঙ্গে পরিমাণ মতো কালোজিরার তেল মিশিয়ে প্রতিদিন ৩ থেকে ৪ বার সেবন করুন, দেখবেন আপনার গ্যাসের সকল সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে। এভাবে এক থেকে দুই সপ্তাহ প্রতিদিন নিয়ম মেনে কালোজিরা সেবন করলে আপনি এর উপকার বুঝতে পারবেন।

ওজন কমাতেঃ শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য কালোজিরার সুখ্যাতি রয়েছে। কালোজিরাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান, যা অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য ভালো কাজ করে থাকে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে শরীরের ওজন কমানোর জন্য কালোজিরার তেল বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা কালোজিরা তেল খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করেঃ ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার জন্য কালোজিরা বেশ উপকারী। মুখের বিভিন্ন কালো দাগ ও ব্রন সরাতে সক্ষম কালোজিরা। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার জন্য কালোজিরার তেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে ফেলুন এবং এটি প্রতিদিন ২ বার করে মুখে লাগান দেখবেন মুখের সব সমস্যা দূর হবে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করেঃ কালোজিরায় উপস্থিত পুষ্টি গুণাবলী মানবদেহের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম। উচ্চ রক্তচাপ কমানোর জন্য কালোজিরার ভূমিকা অপরিসীম। আপনি যদি চা অথবা গরম পানির সাথে কালোজিরা মিশিয়ে খেতে পারেন তাহলে আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ থাকবে।

কালোজিরার অপকারিতা

কালোজিরার যেমন অনেক ভালো দিক রয়েছে, তেমনি এর অনেক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও রয়েছে। আপনি যদি অতিরিক্ত পরিমাণে কালোজিরা খেয়ে ফেলেন তাহলে আপনার শরীরে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাহলে চলুন কালোজিরার অপকারিতা বা এর ক্ষতিকর দিকগুলো নিয়ে আলোচনা করা যাক।

  • আপনি যদি অতিরিক্ত কালোজিরা সেবন করেন তাহলে আপনার শরীরে রক্ত জমাট বাঁধার ক্ষমতা কমে যেতে পারে। তাই অতিরিক্ত কালোজিরা না খেয়ে নিয়ম-নীতি অনুসরণ করে কালোজিরা খাওয়ার চেষ্টা করবেন।
  • অতিরিক্ত কালোজিরা খাওয়ার ফলে শরীরের রক্তে শর্করার অভাব দেখা দিতে পারে। যাদের ডায়াবেটিস আছে তারা অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ পূর্বক কালোজিরা খাওয়ার চেষ্টা করবেন।
  • কালোজিরার তেল যেমন ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে পারে, তেমনি এটি যদি আপনি অতিরিক্ত লাগিয়ে ফেলেন তাহলে ত্বকে এলার্জি হতে পারে।

কালোজিরা খাওয়ার নিয়ম

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা প্রতিদিন কালোজিরা খান। আবার অনেকে আছেন কালোজিরা খাওয়ার নিয়ম জানেন না। তাহলে চলুন এক নজরে দেখে নিন কালোজিরা খাওয়ার নিয়ম গুলো কি কি-

  • তরকারিতে মসলা হিসেবে খেতে পারেন
  • মধুর সাথে কালোজিরার তেল মিশিয়ে খেতে পারেন
  • চিবিয়ে চিবিয়ে খেতে পারেন
  • রুটি তৈরির সময় এর ওপর ছড়িয়ে দিয়ে খেতে পারেন
  • বিভিন্ন চাটনিতে বা আচারে কালোজিরা ব্যবহার করা হয়
  • পানের সাথে মসলা হিসেবে এটি খাওয়া যায়
[বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ আপনার শরীরের অবস্থা বুঝে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী কালোজিরা খাওয়া উচিত]

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url