ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি - ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ কি

আমরা প্রতিদিন মোবাইল কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে অসংখ্যবার ওয়েবসাইট ব্রাউজ করি। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই আছি যাদের মনের মধ্যে প্রশ্ন আসে যে এই ওয়েবসাইট কারা তৈরি করে বা কিভাবে তৈরি করে এবং এত সুন্দর ডিজাইন কিভাবে তৈরি করে তারা। মূলত একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা থেকে শুরু করে ডিজাইন করা সব কিছুই করে থাকেন একজন ওয়েব ডেভলপার। 

ওয়েব ডেভেলপাররা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট করে প্রতিনিয়ত ওয়েবসাইটের আপডেট এবং নিত্য নতুন ডিজাইন দিয়ে থাকেন। এখন প্রশ্ন আসতেই পারে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট জিনিসটা কি এবং এটি কিভাবে করে। তাহলে চলুন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি, এটি কিভাবে করে এবং এর ভবিষ্যৎ কি এই সকল প্রশ্নের রহস্য উন্মোচন করা যাক।

পেজ সূচিপত্রঃ ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি - ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কি

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা থেকে শুরু করে এর ফ্রন্ট এন্ড এবং ব্যাক এন্ড সমস্ত কাজ সম্পাদিত করার প্রক্রিয়াকে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বলে। ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর মধ্যে সাধারণত ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট এবং ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্ট দুইটি প্রধান অংশ রয়েছে। ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমে ওয়েবসাইটকে ওয়েব ব্রাউজারে দেখানো যায় এবং ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমে সার্ভারে তথ্য সংরক্ষণ এবং প্রক্রিয়াকরণের কাজ সম্পাদিত করা হয়।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কি

ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কিছু কাজের উদাহরণ দেওয়া হলোঃ

ওয়েবসাইট তৈরিঃ ওয়েব ডেভলপাররা ওয়েবসাইট বা ওয়েবপেজ তৈরি করেন। এটি ব্যবহারকারীদের উদ্দেশ্যে তথ্য সরবরাহ করে, প্রয়োজনীয় পরিচিতি প্রদান করে এবং ব্যবহারকারীদের সাথে ইন্টেরিঅ্যাক্টিভিটি স্থাপন করে।

ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্টঃ ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্টে ডেভেলপাররা ওয়েবসাইটের ব্যবহারকারীর সঙ্গে সংযোগ প্রদান করে। এটি ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপন অনুসরণ করে এবং ব্যবহারকারীদের সাথে ইন্টারেক্টিভিটি স্থাপন করে। ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্টে হাতের কাজে সাধারণত হাইপারটেক্সট মার্কআপ ভাষা(HTML), স্টাইলিং স্টাইলসীট ভাষা(CSS) এবং জাভা স্ক্রিপ্ট(JavaScript) ব্যবহার করা হয়।

ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্টঃ ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্টে ডেভেলপাররা সার্ভার সাইডের কাজ সম্পাদন করেন। এটি ডাটাবেস সংযোগ, তথ্য সংরক্ষণ, ব্যবহারকারীর প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ এবং ওয়েব এপ্লিকেশনের পক্ষে ব্যবহারকারীর অনুরোধের জন্য উপস্থাপন সংযোগ প্রদান করে। ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্টে ডেটাবেস প্রোগ্রামিং, সার্ভার সাইডের স্ক্রিপটিং ভাষা (যেমনঃ PHP, Python, Ruby, ইত্যাদি) এবং সার্ভারের পরিচালনার কাজ সম্পাদনের জন্য ব্যবহৃত হয়।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখার জন্য কোন প্রোগ্রামিং ভাষা ভাল হয়

HTML(হাইপারটেক্সট মার্কআপ ভাষা): HTML ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর জন্য মৌলিক ভাষা। এটি ওয়েব সাইটের স্ট্রাকচার পরিচিতি এবং তথ্য সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত হয়।

CSS(সিএসএস): CSS ওয়েব ডেভেলপমেন্টে স্টাইলিং এবং ওয়েবসাইটের অঙ্গগুলির ওপর কাজ করে। এটি ওয়েবসাইটের ডিজাইন, লেআউট এবং দৃশ্যমানতা নির্ধারণের জন্য ব্যবহৃত হয়।

PHP(পিএইচপি): PHP সার্ভার-সাইড ওয়েব ডেভেলপমেন্টের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এটি ডাটাবেস কানেকশন, প্রক্সি, ফাইল প্রসেসিং এবং পিএইচপি বেসড কার্ট সিস্টেম পর্যালোচনার জন্য ব্যবহৃত হয়।

JavaScript(জাভা স্ক্রিপ্ট): JavaScript ওয়েব ডেভেলপমেন্টের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এটি দ্বারা দ্বিতীয় HTML এবং CSS এর সাথে সংযোগ করে ওয়েব পৃষ্ঠাগুলি ইন্টারআক্টিভ  ও ডায়নামিক করা যায়।

Python(পাইথন): Python ওয়েব ডেভেলপমেন্টে একটি বিশেষভাবে প্রয়োজনীয় প্রোগ্রামিং ভাষা। এটি সার্ভার-সাইড স্ক্রিপ্টিং, ডাটা প্রসেসিং এবং মেশিন লার্নিং অ্যাপ্লিকেশনের জন্য ব্যবহৃত হয়।

উল্লেখ্য, উপরের সকল জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ভাষা গুলোর মধ্যে JavaScript দিয়ে ওয়েব সাইটের ফ্রন্ট এন্ড এবং ব্যাক এন্ড উভয় ধরনের কাজ সম্পাদন করা যায়। তাই বিশ্বের বড় বড় ওয়েব ডেভেলপারদের মতে একজন কমপ্লিট ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার জন্য জাভা স্ক্রিপ্ট(JavaScript) শেখাটাই যুক্তিযুক্ত হবে বলে মনে করা হয়।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে কতদিন লাগে

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে কত দিন সময় লাগে সেটি আপনার কাজের ধরন, আপনার পূর্ববর্তী অভিজ্ঞতা, প্র্যাকটিসের সময়, আপনার আগ্রহ এবং প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভর করে। আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে চান তাহলে আপনাকে বেশ পরিশ্রম করতে হবে তাহলেই আপনি কয়েক মাসের মধ্যে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে পারবেন। যদি আপনি সঠিক পরিকল্পনা করে কাজ করেন এবং নিয়মিতভাবে প্র্যাকটিস করেন তাহলে আপনি কয়েক মাসের মধ্যে ভালো ধারণা পেয়ে যাবেন। তবে সম্পূর্ণ দক্ষতা অর্জনের জন্য ওয়েব ডেভলপারদের মতে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে ১-২ বছর সময় লেগে যেতে পারে।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর ভবিষ্যৎ কি

বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশি ওয়েব ডেভেলপারদের দক্ষতাও দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে এবং বিশ্বের বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে বাংলাদেশী ওয়েব ডেভেলপাররা বেশ সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো ওয়েবসাইটের সংখ্যা দিন দিন বাড়বে বরং কমবে না এবং ওয়েবসাইটের সংখ্যা যত বৃদ্ধি পাবে ওয়েব ডেভেলপারদের কাজও তত বৃদ্ধি পাবে। তাই একজন ওয়েব ডেভলপার হলে তার চাকরি হারানোর ভয় বা কাজের সংকট কখনো হবে না।

বর্তমানে আমাদের দেশে তরুণদের মধ্যে সবচেয়ে সহজে ইনকাম করার পদ্ধতি হলো ফ্রিল্যান্সিং। আর এই ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বেশ জনপ্রিয় এবং এই কাজের পারিশ্রমিক যথেষ্ট ভালো। তাই আপনি যদি একজন পারফেক্ট ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠতে পারেন তাহলে আপনার ভবিষ্যতের জন্য আপনাকে স্বাগতম।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url