ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত - ঠিকানা রিসোর্ট ঢাকা কোথায়

আপনি কী জানেন, ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত? যদি না জানেন তাহলে খুব সহজেই জেনে নিন ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত। ভ্রমন পিপাসু ভাই-বোনদের জন্য আজকের আলোচনায় আরো থাকছে ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত বা ঠিকানা রিসোর্টে কিভাবে যাবেন, ঠিকানা রিসোর্টের ছবি, ঠিকানা রিসোর্টে খরচ, ঠিকানা রিসোর্টের খাবারের মূল্য তালিকা সম্পর্কে। তো চলুন দেরি না করে জেনে নেয়া যাক ঠিকানা রিসোর্টের আদ্যোপান্ত।

পোস্ট সূচিপত্রঃ ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত -  ঠিকানা রিসোর্ট ঢাকা কোথায় 

ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত - ঠিকানা রিসোর্ট ঢাকা কোথায়

আপনাদের কাছে অনেকে হয়ত জানতে চায়, ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত? ঠিকানা রিসোর্ট তার সৌন্দর্যের জন্য খুবই বিখ্যাত। বিশেষ করে ঢাকাবাসীদের জন্য একটি বিখ্যাত স্থান। এর নির্মাণশৈলী অসাধারণ। যে কেউ প্রথম দেখাতে এর সৌন্দর্যের প্রেমে পড়ে যাবে। ঠিকানা রিসোর্ট টি গুলশান হতে প্রায় ৩কি.মি. দূরে বেরাইদ, বাড্ডা বালু নদীর তীরে অবস্থিত। 

ঠিকানা রিসোর্ট বা ঠিকানা রেস্টুরেন্ট-এ ঢুকতে গেলে ২০০ টাকা প্রবেশ ফি দেয়া লাগে। ভিতরে প্রবেশ করার পর কেউ যদি কোন খাবার অর্ডার করে তবে ঐ ২০০ টাকা হতে খাবারের দাম কেটে রাখা হয়। আর যদি কেউ কোন খাবারের অর্ডার না করে তাহলে প্রবেশ ফি ফেরত দেয়া হয় না। আজকের এই পোস্ট হতে আপনি জানতে পারলেন ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত।

ঠিকানা রিসোর্ট এর লোকেশন

গুলশান হতে ১০০ ফিট দূরে মাদানী এভিনিউ, বেরাইদ, বাড্ডায় ঠিকানা রিসোর্ট অবস্থিত। নতুন বাজার থেকে রিকশায় করে ঠিকানা রিসোর্টে  আসতে পারবেন। আবার উত্তর বাড্ডা হতে রিকশায় করেও ঠিকানা রিসোর্টে  আসতে পারবেন।

ঠিকানা রিসোর্ট এর খরচ - ঠিকানা রিসোর্টে খাবারের মূল্য তালিকা

উপরের আলোচনা হতে জানলেন, ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত সে সম্পর্কে। এখন আলোচনা করবো এর খরচ নিয়ে। ঠিকানা রিসোর্টের খাবারের খরচ বা খাবরের মূল্য তালিকা অন্যান্য স্থান বা রেস্টুরেন্টের তুলনায় একটু বেশী। ঠিকানা রেস্টুরেন্টে বিবাহ, গায়ে হলুন, জন্মদিন পালন, বিবাহবার্ষিকী পালনসহ যেকোন সামাজিক ও পারিবারিক অনুষ্ঠানের জন্য বুকিং করতে পারেন। 

অবসর সময় কাটানোর জন্য প্রিয়জনকে নিয়ে ঠিকানা রিসোর্ট-এ আসতে পারেন। পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধুদের নিয়ে আসতে পারেন। অবশ্য ঠিকানা রেস্টুরেন্টে আসার আগে ফোন করে বুকিং দিয়ে আসলে ভালো হয়। কারণ দিন দিন এই রিসোর্ট এর চাহিদা এতো বাড়ছে যে, এখানে সময়মত খাবার পাওয়া ভাগ্যে ব্যাপার। 

ঠিকানা রিসোর্ট-এ গ্রামীণ মাটির চুলায় পিঠা তৈরির প্রণালী দেখতে পাবেন। কুঁড়ে ঘরে বসে গরম গরম পিঠা খেতে পারবেন। তাছাড়া ঠিকানা রিসোর্ট এর নিজস্ব বাগানে চাষ করা সবজি ও মাছ খেতে পারবেন। তবে এখানে খাবারের দাম তুলনামূলকভাবে একটু বেশী।

সর্বনিম্ন সেট মেনুর দাম ৬৫০ টাকা। সাথে ভ্যাট যোগ করে হতে পারে ৭৫০ টাকা!। আর এই সর্বনিম্ন সেট মেনুতে যা থাকছে তা হলো ভুনা খিচুড়ি+ বিফ ভুনা+ অমলেট+ বেগুন ভাজা+ আচার+ সালাদ+ ওয়াটার। অর্থাৎ এখানে একবেলা খেতে হলে জনপ্রতি ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা খরচ হবে।

আপনার বুকিং নিশ্চিত করতে কমপক্ষে ১ দিন আগে এই নম্বরে- ০১৭২৬-৬৬৬৬৬৩ কল অথবা এসএমএস করতে পারেন।  বুকিং ছাড়া ঠিকানায় প্রবেশ কিছুট অনিশ্চিত রয়ে যাবে।

ঠিকানা রিসোর্ট কেনো বিখ্যাত

সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর ঠিকানা রিসোর্ট-এ রয়েছে দৃষ্টি নন্দন সব আয়োজন। এখানে রয়েছে উন্নতমানের কফিশপ। এখানে সেই সুদূর ব্রাজিল থেকে কফি এনে কফি বিক্রয় করা হয়। এই উন্নতমানের ডে আউটার্স তৈরি করা হয়েছে ঐতিহ্যবাহী কাঠের বাড়ির নান্দনিক কারুকার্যে। ঠিকানা রিসোর্ট এর মূল ফটক থেকে শুরু করে সম্পূর্ণ রেস্টুরেন্ট জুড়ে রয়েছে গ্রামীণ শৈল্পিক ছোঁয়া এবং প্রকৃতির নয়নাভিরাম সৌন্দর্য। 

ঠিকানা রিসোর্ট-এ অনেক দর্শনার্থী যায় সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখতে। ঠিকানা রিসোর্ট-এ রয়েছে বিশাল আম বাগান ও নয়নাভিরাম বড় মাঠ। ভৈার ৬টা হতে রাত ১২টা পর্যন্ত উক্ত রিসোর্টটিতে আপনি সময় কাটাতে পারবেন। বাহারি রঙের ফুলে ঘিরে আছে গোটা রিসোর্টটি। বিভিন্ন ফুলের অপরূপ সৌন্দর্যে আপনার মনের ভিতর এক শীতল ছোঁয়া অনুভব করবেন।

ঠিকানা রিসোর্ট এর ম্যানেজার ও প্রতিষ্ঠাতা তায়্যেবা আফরিন নামের এক ব্যক্তি। তিনি মূলত করোনাকালীন সময়ে এই রিসোর্টটিকে অপরূপ সৌন্দর্যে সাজিয়েছেন। তার এই অসাধারণ উদ্যোগের জন্য তিনি সুধী মহলে আলোচনার পাত্র হয়ে গেছেন।

উপসংহারঃ ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত -  ঠিকানা রিসোর্ট ঢাকা কোথায় 

উপরের আলোচনা হতে আমরা জানতে পারলাম, ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত, ঠিকানা রিসোর্টের খরচ ইত্যাদি। সবশেষে বলা যায়, প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও ম্যানেজার তায়্যেবা আফরিন নিজের মনের মিতালী মিশিয়ে যে ঠিকানা রিসোর্ট তৈরী করেছেন তা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার। সপ্তাহের ছুটির দিনে আপনারা স্ব-পরিবারে ঠিকানা রিসোর্ট  থেকে ঘুরে আসতে পারেন। আশা করা যায় খোলামেলা পরিবেশে বিচরণ করে আপনার মনে প্রশান্তির ছোঁয়া লাগবে। এখন যদি আপনাকে কেউ জিজ্ঞাসা করে ঠিকানা রিসোর্ট কোথায় অবস্থিত, তাহলে নিশ্চয়ই আপনি উক্ত প্রশ্নের জবাব দিতে পারবেন। ১৯০২৬

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url